৩৮তম বিসিএস ক্যাডার লামার অংসিং ও সোনিয়া

৩৮তম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডার পদে এই প্রথম বারের মত বান্দরবানের লামা উপজেলা থেকে অংসিং মার্মা ও তামান্না হুরায়রা সোনিয়া নিয়োগের জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছেন। গত ৩০ জুন বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) জরুরি সভা শেষে প্রকাশিত দুই হাজার ২০৪ জনের ফলাফলে তাদেরকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হয়।

বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের ওয়েব সাইটে দেয়া তালিকায় এই তথ্য জানা যায়। সুপারিশকৃত ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর এ দুই কৃতি শিক্ষার্থীর প্রতি অভিনন্দন বার্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়ে। এছাড়া উপজেলাবাসী হিসাবে দলমত নির্বিশেষে এ কৃতি শিক্ষার্থীর ফলাফলে গর্ববোধের পাশাপাশি দীর্ঘায়ু কামনা করে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেন।

এই সাথে শরীক হন লামা পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলামসহ উপজেলার বিভিন্ন স্তরের মানুষ। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি ত্রিশডেবা গ্রামের বাসিন্দা হ্লাচিং মং মার্মা ও অংমে মার্মার ছেলে অংসিং মার্মা। তিনি আলীকদম সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০০৯ সালে এসএসসি, ডুলহাজারা কলেজ থেকে ২০১১ সালে এইচএসসি পরিক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উর্ত্তীণ হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে মার্স্টাস শেষ করেন। এরপর তিনি গত ২০১৯ সালের ২০ জুন সালে বাংলাদেশ জনতা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার হিসেবে নিয়োগ পেয়ে বর্তমানে লামা শাখায় কর্মরত আছেন।

এদিকে নিয়োগে সুপারিশকৃত অপরজন তামান্না হুমাইরা সোনিয়া পৌরসভা এলাকার নয়াপাড়ার বাসিন্দা প্রবীণ সাংবাদিক মরহুম আবু হুরাইরা ও উপজেলায় কর্মরত পরিবার পরিকল্পা কর্মকর্তা জুবাইরা বেগমের মেয়ে। তিনি ২০০৪ সালে লামা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০০৬ সালে চট্টগ্রাম মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। এরপর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১৩ সালে ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাশ করেন। সর্বশেষ ৩৮তম বিসিএস এ প্রশাসন ক্যাডার পদে উভয়ে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হন।

দুই জনের সফলতার খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান থোয়াইনু অং চৌধুরী, পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লী’গের সভাপতি বাথোয়াইচিং মার্মা, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মেযর মো. আমির হোসেন, লামা রিপোর্টার্স ক্লাবের সদস্যবৃন্দ অভিনন্দন জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *